ইহুদী খৃষ্টানদের অনুসরণের পরিণতি-নেপথ্যে ফুটবল উন্মাদনা


নিজস্ব প্রতিবেদক:
একজন মুসলমানের চেতনা যখন ভোঁতা হয়ে যায়, নিজের অবস্থান ও অস্তিত্ব হারিয়ে ফেলে তখন সে ইহুদী খৃষ্টানদের জন্য শ্লোগান দিতে থাকে। তাদের জন্য রাত জাগে। স্বপ্ন বুনে। স্বপ্ন দেখে। পতাকা তৈরি করে। নিজেকে তাদের আকৃতিতে সজ্জিত করে। তাদের পক্ষ নিয়ে নিজের ভাইয়ের সঙ্গে ঝগড়া করে। রক্তাক্ত করে। সুযোগ পেলে হত্যাও করে কখনো। যদিও তাদের নিকট এই নির্বোধের সামান্য মূল্যটুকুও নেই।

এই লোকটি আবার নিজেকে মুসলিম হিসেবেও দাবি করে। অথচ ইসলামের মূল্য সে জানে না। ইসলাম নিয়ে সে স্বপ্ন বুনে না। ইসলামকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেয়ার স্বপ্ন সে দেখে না। ইসলামের জন্য রাত্রি জাগরণ করে না। ইসলামের পোশাক সে পছন্দ করে না। ইসলামের কিতাবটি স্পর্শ করার সময়টুকুও সে পায়না। ইসলামের জন্য সে কখনো রুখে দাঁড়ানোর প্রয়োজন অনুভব করে না। ইসলামের জন্য রক্ত দেয়া, জীবন উৎসর্গ করার মানসিকতা সে আদৌ নিজের মধ্যে তৈরি করতে পারেনি।

আমার ভালোবাসা, উৎসাহ, আবেগ যদি সতের হাজার কিলোমিটার আর্জেন্টিনা অথবা ষোল হাজার কিলোমিটারের ব্রাজিলকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয় তাহলে আমার শেষ পরিণতিও তাদের মত হওয়াটা অস্বাভাবিক নয়।

কেননা, আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,
عَنْ ابْنِ عُمَرَ قَالَ : قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَنْ تَشَبَّهَ بِقَوْمٍ فَهُوَ مِنْهُمْ

  • “যে ব্যক্তি কোনো জাতির সাদৃশ্য গ্রহণ করে, অনুসরণ করে সে ব্যক্তি সেই জাতিরই অন্তর্ভুক্ত বলে গণ্য হবে”।[ আবু দাউদ শরীফ, ৩৫১২]

নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আরও বলেছেন,
عن عبد الله عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم أَنَّهُ قَالَ ‏ “‏ الْمَرْءُ مَعَ مَنْ أَحَبَّ
-“মানুষ যাকে ভালবাসবে, সে তারই সঙ্গী হবে।” [সহীহুল বুখারী, ৬১৬৯]

অবশ্য কিয়ামতের পূর্ব লক্ষণও এটা যে, মুসলমান শেকড়হীন, আত্নভোলা জাতিতে পরিণত হবে। রাসূলে আরাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ভাষায়,
عَنْ أَبِي سَعِيدٍ الْخُدْرِيِّ، قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم ‏”‏ لَتَتَّبِعُنَّ سَنَنَ الَّذِينَ مِنْ قَبْلِكُمْ شِبْرًا بِشِبْرٍ وَذِرَاعًا بِذِرَاعٍ حَتَّى لَوْ دَخَلُوا فِي جُحْرِ ضَبٍّ لاَتَّبَعْتُمُوهُمْ ‏”‏ ‏.‏ قُلْنَا يَا رَسُولَ اللَّهِ آلْيَهُودَ وَالنَّصَارَى قَالَ ‏”‏ فَمَنْ ؟”

-আবূ সাঈদ খুদরী (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ তোমরা তোমাদের পূর্ববর্তীদের নীতি-পদ্ধতি পুরোপুরিভাবে অনুসরণ করবে, বিঘতে বিঘতে ও হাতে হাতে, এমনকি তারা যদি তিনি সাপের গর্তে প্রবেশ করে থাকে তাহলেও তোমরা তাদের অনুসরণ করবে। আমরা বললাম, ইয়া রাসুলাল্লাহ! পূর্ববর্তী উম্মাত বলতে তো ইয়াহুদি ও খ্রিস্টানরাই উদ্দেশ্য? তিনি বললেন, তবে আর কারা? (অর্থাৎ তারাই উদ্দেশ্য) [বুখারী শরীফ: ৩৪৫৬; মুসলিম শরীফ: ৬৫৩৩]

মুমিন আল্লাহকে সবথেকে বেশি ভালবাসবে। আল্লাহর আনুগত্যে বাঁধা হবে এমন কারো স্থান তার জীবনে থাকবে না।

আল্লাহ রাব্বুল আলামীন স্বয়ং এরশাদ করেন,

وَمِنَ النَّاسِ مَن يَتَّخِذُ مِن دُونِ اللَّهِ أَندَادًا يُحِبُّونَهُمْ كَحُبِّ اللَّهِ ۖ وَالَّذِينَ آمَنُوا أَشَدُّ حُبًّا لله
তথাপি মানুষের মধ্যে কেহ কেহ আল্লাহ্ ছাড়া অপরকে আল্লাহর সমকক্ষরূপে গ্রহণ করে এবং আল্লাহকে ভালবাসার অনুরূপ তাহাদেরকে ভালবাসে; কিন্তু যাহারা ঈমান আনিয়াছে আল্লাহর প্রতি ভালবাসায় তাহারা সুদৃঢ়। [সূরা বাকারা: ১৬৫]

—জুবায়ের হুসাইন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *