ফরিদপুরে কথিত রফিকের বিরুদ্ধে ডিসি-এসপি ও ওসির নিকট ২০টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের অভিযোগ


স্টাফ রিপোর্টার:
সদ্য বিলপ্ত ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরামের স্বঘোষিত সভাপতির বিভিন্ন কর্মকান্ডে বির্তকিত জনৈক মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিকের বিরুদ্ধে ফেসবুক লাইভে এসে স্বেচ্ছাসেবী মানবিক সংগঠন ও মানব কল্যাণে নিয়োজিত স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে ঢালাও ভাবে মিথ্যা, মনগড়া, মানহানিকর বক্তব্য প্রদান ও শান্তিপ্রিয় ফরিদপুর বাসীর মাঝে বিভ্রান্তি ও অশান্তি সৃষ্টির মতো ঘৃণা কাজ করায় ফরিদপুরের ২০টি মানবিক সংগঠনের পক্ষ থেকে গত ০২/০৫/২০২১ তারিখে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট অভিযোগ দাখিল করেছেন।

ইতি পূর্বেও রফিক ফেসবুক লাইভে ফরিদপুর বারের বিশিষ্ট আইনজীবী ও ব্লাষ্টের ফরিদপুর জেলা সসমন্বয়কারী এ্যাড. শিপ্রা গোস্বামীসহ সম্মানিত ব্যক্তি বর্গছাড়া ও প্রশাসনও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে হেয় প্রতিপন্ন করার মত ঘৃণ্য অপকর্ম করেছেন। এই ব্যক্তি পর্নোগ্রাফী বা অশীল ভিডিও দেখার আসক্তি থেকে গভীর রাতে পর্নস্টার সানি লিয়নের লাইভে গিয়ে যৌন আবেদনময়ী মন্তব্য করে দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে সংগঠনের আড়ালে নারীদেরকে অশালীন-বাজে মেসেজ ও কুপ্রস্তাব দিয়ে রাত-বিরাতে বিরক্ত করে, সুকৌশলে চাইনিজ রেস্টুরেন্টে নিয়ে অসৎ উদ্দেশ্যে আড্ডা দেয়াসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত থাকে।

নিজেকে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী, এমপি, প্রশাসন ও সরকারের আস্থাভাজন ও ঘনিষ্ঠজন পরিচয় দিয়ে মানুষের মাঝে নিজেকে প্রবল ক্ষমতাধর ও প্রভাবশালী হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন, মামলা দিয়ে ক্যারিয়ার ধ্বংস করাসহ প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করায় তার বিরুদ্ধে ইতি পূর্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী গত ২৪/০১/২০২১ইং তারিখে ফরিদপুর, কোতয়ালী থানায় একটি জিডি দায়ের করে (জিডি নং-১৪১১)।

এছাড়াও সোয়ান ইন্ড্রাটিজ লিঃ কোম্পানির ১২ (বারো) লক্ষাধিক টাকা ও প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট আত্মসাৎ করে পলাতক থাকার অভিযোগে ১৯/০৪/২০০৮ইং তারিখে যশোর মডেল থানায় (কোতয়ালী) জিডি হয় (জিডি নং ৫৮)। অভিযোগে আরো বলা হয় তিনি প্রতারণা ও বিতর্কিত কর্মকান্ডের কারণে মানিকগঞ্জ থেকে বিতাড়িত হয়ে ফরিদপুরে আশ্রয় নিয়েছেন, সুনির্দিষ্ট কোন আয় না থাকা সত্ত্বেও সম্প্রতি ফরিদপুর শহরের প্রাণকেন্দ্র অম্বিকা সড়কের মজিদ টাওয়ারে (৬ষ্ঠ তলায়) প্রায় ৬১,০০,০০০ (একষট্টি লক্ষ টাকা) ব্যয়ে একটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কিনেছেন।

এছাড়া ও সে মানিকগঞ্জ জেলার অভিজাত এলাকা গঙ্গাধরপট্রি, খালপাড়, সদর থানার পাশে অবস্থিত জিন্নাত রাবেয়া প্লাজার ২য় তলায় (ফ্ল্যাট# ১-ডি) ২২ লক্ষ টাকা সমমূল্যের একটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাটের মালিক বলে জানা যায়। এর বাহিরেও ৪০,০০,০০০ টাকা (চল্লিশ লক্ষ টাকা) সমমূল্যের সঞ্চয়পত্র ক্রয় করেছেন বলেও লোক মুখে শোনাযায়। ইতিমধ্যেই, জনমনে তার বৈধ আয়ের উৎস নিয়ে বহুপ্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। অভিযোগে আরো জানাযায় সারাদেশে স্বেচ্ছাসেবী মানবিক সংগঠনগুলো বিপদসঙ্কুল ও সঙ্কটপূর্ণ পরিবেশে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানব কল্যাণে কাজ করে থাকে।

তার মত একজন লোক স্বেচ্ছাসেবী মানবিক সংগঠন ও স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে অযাচিত, কুরুচিপূর্ণ, মিথ্যা, ভিত্তিহীন মন্তব্য করে অপরাধ করেছেন। বিষয়টিতে আমরা গভীরভাবে ব্যথিত ও মর্মাহত হয়েছি। শুধু স্বেচ্ছাসেবী মানবিক সংগঠন নয় সমগ্র ফরিদপুর বাসীর স্বার্থে এ বিষয়ে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাগ্রহণ করা একান্ত আবশ্যক।


অভিযোগের বিষয় রফিকের নিকট জানতে চাইলে সে জানান, আমি স্বেচ্ছাসেবী মাানবিক সংগঠন নিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছি সেটা আমার ভুল ছিল, আমি আর কারো সাথে কোন ঝামেলায় যেতে চাই না। আমি আর কোন সংগঠন করবো না। আর ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম নিয়ে ঝামেলা আমি সেটা বিলপ্তি করে দিছি।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *