ফরিদপুরে খিচুড়ি খেয়ে ২১ জন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি


স্টাফ রিপোর্টার:
ফরিদপুরে খিচুড়ি খেয়ে এক পরিবারের ছয় সদস্যসহ ২১ জন অজ্ঞান হয়ে পড়েছেন। রবিবার বিকেল ৩টার দিকে ফরিদপুর সদরের কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বারোভাগিয়া গ্রামের মো: সিরাজ মাতুব্বরের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। জ্ঞানহীন ওই ২১জন বর্তমানে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, রবিবার সিরাজ মাতুব্বরের বাড়িতে দুপুরে খাবারের জন্য পারিবারিক ভাবে পোল্টি মুরগী দিয়ে খিচুড়ি রান্না হয়। এই খিচুড়ি খেয়ে সিরাজ মাতুব্বরের পরিবারের ছয়জনসহ জমিতে পিয়াজ রোপনের কাজে নিয়োজিত নয়জন শ্রমিক এক ঘন্টার মধ্যে একে একে স্বাভাবিক জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

পরে এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। জ্ঞাহীনদের মধ্যে সিরাজ মাতুব্বর নিজেও রয়েছেন। এছাড়া তার পরিবারের তিন নারী ও এক শিশু রয়েছে।

প্রতিবেশী রুমী মাতুব্বর জানান, পোল্টি মুরগী দিয়ে রান্না করা খিচুড়ি খেয়ে খাদ্যেবিষক্রীয়া হয়ে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করছি।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক সাইফুর ইসলাম বলেন, খাদ্য খেয়ে জ্ঞান হারিয়ে ২১ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাদের চিকিৎসা চলছে।

ফরিদপুর সদর সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার সুমন রঞ্জন সরকার জানান, এ ব্যাপারে পুলিশের একটি দলকে ঘটনাস্থল ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, শত্রুতাবশত কেউ ওই খাদ্যে কিছু মিশিয়ে দিতে পারে কিংবা চুরির মানসিকতা থেকেও এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *