ফরিদপুরে নাজমুল হাসান নসরু স্মৃতি গোল্ডকাপ ব্যাডমিন্টন ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত ও পুরস্কার বিতরণ


মানিক কুমার দাস:

ফরিদপুরের আলিপুর উদয়ন সংঘ আয়োজিত বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হাসান নসরু স্মৃতি গোল্ডকাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে খন্দকার শফিউজ্জামান স্মৃতি সংঘ। প্রতিযোগিতায় রানার আপ হয়েছে ইকবাল স্মৃতি সংঘ। বৃহস্পতিবার রাতে অনুষ্ঠিত ফাইনালে বিজয়ী দল ২/০ সেটে ১৫/২ ও ১৫/৫ পয়েন্টে জয়লাভ করে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়।

এর আগে টুর্নামেন্টের প্রথম সেমিফাইনালে খন্দকার শফিউজ্জামান স্মৃতি সংঘ ২/০ সেটে রুবি স্মৃতি একাদশকে এবং ইকবাল স্মৃতি সংঘ ২/১ সেটে শেখ ফজলুল হক মনি স্মৃতি সংঘ কে পরাজিত করে ফাইনালে উন্নীত হয়।
ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও স্থানীয় বাসিন্দা শামীম হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন ফরিদপুর পৌরসভার মেয়র অমিতাভ বোস ও ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ঝর্না হাসান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নাঈমুল হাসান রক্তিম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নাজমুল হাসান নসরুর স্ত্রী নাইয়াব সুলতানা।

অনুষ্ঠানে বক্তারা এই টুর্নামেন্টের মধ্য দিয়ে আলিপুর আবার খেলাধুলা ফিরে আসবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতির ভাষণে নাইয়াব সুলতানা বলেন তার স্বামীর নামে প্রতিবছর যেন এ ধরনের টুর্নামেন্ট হয় তা তিনি আশা করেন। একই সাথে উদয়ন সংঘ একটা লাইব্রেরী থাকবে বলেও প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। টুর্ণামেন্টে প্রধান অতিথির ভাষণে শামীম হক বলেন প্রতি বছর আলিপুরে এই ধরনের অনেক টুনামেন্ট হবে। যাতে এতে স্থানীয় খেলোয়াড়দের পাশাপাশি বাইরের খেলোয়াড়রাও অংশগ্রহণ করতে পারে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির ভাষণে পৌরসভার মেয়র অমিতাভ বোস বলেন ফরিদপুর পৌরসভার উদ্যোগে এখন থেকেই ওয়ার্ড কাপ টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হবে। তবে এতে শুধুমাত্র স্থানীয় খেলোয়াড় অংশগ্রহণ করবেন। কোন হায়ারের খেলোয়াড় থাকবে না। অনুষ্ঠানে এক বক্তব্যে মরহুমের ছেলে ও টুর্নামেন্ট কমিটির আয়োজক নাইমুল ইসলাম রক্তিম প্রতিবছর তার বাবার নামে এ ধরনের টুনামেন্ট হবে বলে প্রত্যাশা জ্ঞাপন করেন।
পুরা টুর্ণামেন্টে মিডিয়া পার্টনার ছিল ফরিদপুরে সবচেয়ে বড় অনলাইন বৈশাখ নিউজ ডট কম।

অনুষ্ঠানে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ ঘোষণা করা হয় স্কাই মিডিয়া দলের বাক প্রতিবন্ধী খেলোয়ার রিফাত কে। এছাড়া বিজয়ী দল গোল্ড কাপ ট্রফি সহ ৩০০০০ টাকার পুরস্কার ও রানার আপ দল রূপার কাপ ট্রফিসহ ১৫০০০ টাকার প্রাইজমানি পুরস্কার পায়।

উল্লেখ করা যেতে পারে মোট ১৬ টি দল নিয়ে এই টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছিল।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *