ফরিদপুরে রেল স্টেশন মাস্টার এর উপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ


ফরিদপুর প্রতিনিধি: অবৈধ ভাবে ফরিদপুর রেল স্টেশন দখলে নেওয়ার জন্য স্টেশন মাস্টার মো: তাকদির হোসাইনকে দিয়ে জোর পুর্বক চিঠিতে স্বাক্ষর করার জন্য আগ্নেয়াস্ত্রসহ লাঠি সোঠা দিয়ে ভয়ভিতি ও তাকে প্রান নাশের হুমকি দিয়েছে সন্ত্রাসীরা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে কোতয়ালী থানায় লিখিত ও মৌখিক ভাবে জানিয়েছেন তিনি।

ফরিদপুর রেল স্টেশন মাস্টার মো: তাকদির হোসাইন এর লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, গত ৩০ শে জুন আনুমানিক রাত ১২.৩০ মিনিটের দিকে কর্তব্যরত অবস্থায় ভারতীয় বি.সি.এন ওয়াগন এর শান্টিং শেষে স্টেশন মাস্টারের রুমের সামনে দাড়িয়ে থাকার সময় সৈয়দ আব্দুল হাকিম শান্ত তার পিতা সৈয়দ রফিক উদ্দিন আহম্মেদ ওরফে পোকন, প্লাবন, পর্বত, রাজা, সুমন সেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৭/৮ জন সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী দল অতর্কিত ভাবে তার উপর হামলা করে।

এ সময় তারা স্টেশন মাস্টারের কাঁধে রাম দা, পিঠে চাপাতিসহ আরো দুইজন গলায় ও বুকে ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে ধরে। পরে উল্লেখিত সন্ত্রসীদের মধ্যে প্লাবন গুলি ভর্তি পিস্তল স্টেশন মাস্টারের বুকে ঠেকিয়ে বলে, আগামী ১ দিনে মধ্যে ফরিদপুর রেল স্টেশনের গুডস আনলোড ও লেবার হ্যান্ডেলিং পয়েন্টের ট্যানেডল নিয়োগের চিঠিতে স্বাক্ষর করবি, তানা হলে তোকে জানে মেরে ফেলব বলে হুমকি প্রদান করে।

এরপরে স্টেশন মাস্টারের সহকর্মি মো: জাকির হোসেন (পিএম), মারুফ হোসেন (পিএম), হামিম মুন্সি (গেটম্যান), ও সাজ্জাদ হোসেন (পুটার) বাধা দিতে গেলে তাদের কিল ঘুষি থাপ্পর মেরে নিলাফুলা জখম করে। এ সময় প্লাবনকে স্টেশন মাস্টার জাপটে ধরলে সন্ত্রাসী প্লাবন মাটিতে পরে যাওয়ার পরই জীবন রক্ষার্থে স্টেশন মাস্টার ঘটনাস্থল থেকে দৌড়ে দ্রুত পালাতে গেলে সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসীদের মধ্যে পর্বত চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কোপ দিতে আসে। পরে স্টেশনের একজন কর্মচারি পর্বতকে জাপটে ধরলে স্টেশন মাস্টার দৌড়ে তার রুমে চলে যায়।

স্টেশন মাস্টার জানান, বিষয়টি তাৎক্ষনিক ফরিদপুর পুলিশ সুপার মহোদয়কে মৌখিক ভাবে অবহিত করলে কোতয়ালী থানা পুলিশ আসা মাত্রই উল্লেখিত সন্ত্রাসীরা আমাকে প্রান নাশের হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল দ্রুত ত্যাগ করে। বর্তমানে স্টেশন মাস্টার নিরাপত্তাহীনতা জীবন নিয়ে সরকারি কাজে কর্মস্থলে যোগ দিতে পারছে না। এ বিষয়ে তার জীবন ও স্বাভাবিক ভাবে কর্মস্থলে যোগদানের নিরাপত্তাসহ উল্লেখিত সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে এলাকাবাসির সাথে কথা বলে জানা যায়, ফরিদপুর রেল স্টেশন সংলগ্ন কিছু উচ্চ পর্যায়ের সন্ত্রাসীরা স্টেশন দখল করে এলাকায় মাদক ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপকর্ম চালিয়ে আসছে। বর্তমানে স্টেশনের সরকারি কিছু মালামাল জোর পুর্বক দখলের জন্য তান্ডব চালাচ্ছে। এ ছাড়া পুর্বেও এই স্টেশন দখল করার জন্য সন্ত্রাসীরা তান্ডব চালিয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় স্টেশন মাস্টারকে দিয়ে অবৈধ কাজ গুলি হাসিলের জন্যই তার উপরে হয়ত সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। উল্লেখ্য, উক্ত বিষয় নিয়ে ফরিদপুর জেলা প্রশাসক, ডিটিও পাকশি, ডিসিও পাকশি, ফরিদপুর পুলিশ সুপার, ফরিদপুর র‌্যাব-৮ কে লিখিত ভাবে অবহিত করেছেন বলে সেন্টশন মাস্টার জানিয়েছেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *