ফরিদপুরে সদর ইউএনও’র নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান ও দুই প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা


জিল্লুর রহমান রাসেল, স্টাফ রিপোর্টার:

ফরিদপুর শহরে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান পরিচালনা করে বিভিন্ন অনিয়মের কারণে দুটি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেছে।

সদর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজার নেতৃত্বে ২৫ জানুয়ারি সোমবার বেলা ১১ টার দিকে শহরের বাইপাস সড়কে অবস্থিত মেসার্স বিসমিল্লাহ অয়েল সাপ্লাই নামক জ্বালানী তেল বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান এবং ফরিদপুর পুরাতন বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত সুইট রেস্তোরা এন্ড চাইনিজ রেস্টুরেন্টে উপজেলা প্রশাসন, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এবং ফরিদপুর বিএসটিআই কর্তৃক যৌথ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযানে ওজন ও পরিমাপ মানদন্ড আইন, ২০১৮ মোতাবেক পরিমাপে তেল কম দেয়া, নিবন্ধন সনদ এবং ভেরিফিকেশন সনদ ব্যতিত ডিসপেন্সিং মেশিন ব্যবহার করায় মেসার্স বিসমিল্লাহ ওয়েল সাপ্লাই কে ৫৮,০০০/- (আটান্ন হাজার) টাকা এবং পণ্যের পরিচয় ও নিট পরিমাপ মোড়কের মূল্য প্রদর্শনী প্যানেলে মুদ্রিত না থাকা ও অধিক মূল্যে খাবার বিক্রয় করার অপরাধে সুইট রেস্তোরা এন্ড চাইনিজ রেস্টুরেন্টকে ৫০,০০০/- (পঁঞ্চাশ হাজার) টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়।

এসময় জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক সোহেল শেখ, ফরিদপুর বিএসটিআই এর পরিদর্শক এবং ফরিদপুর জেলা পুলিশের ১টি টিম উপস্থিত থেকে অভিযানে সহযোগিতা করেন।

ইউএনও মোঃ মাসুম রেজা জানান, সম্প্রতি শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে রেস্টুরেন্ট এর খাদ্যের মান ও মুল্য নিয়ে বেশ কিছু অভিযোগ এসেছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা অভিযান পরিচালনা করি। বর্তমানে পণ্যের যে বাজার মুল্য/ক্রয় মুল্য এবং রেস্টুরেন্টের যে বিক্রয়মুল্য তা খুবই অসামঞ্জস্যপুর্ন। রেস্টুরেন্টগুলিতে খুবই অধিকমুল্যে খাদ্যদ্রব্য বিক্রয় করা হচ্ছে, তাছাড়া খাবারের মান কতটা উন্নত, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার বিষয়টিও আমরা গুরুত্বের সাথে দেখছি।

তিনি আরো বলেন, যে সকল প্রতিষ্ঠান তেল জাতীয় দ্রব্যাদি মজুদ ও বিক্রয় করে তাদের লাইসেন্স, বিএসটিআই অনুমোদিত ডিসপেন্সিং মেশিন থাকতে হবে। অন্যথায় প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হতে পারে। জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমরা এ ধরনের প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করবো।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *