ফরিদপুরে সরকারী নির্দেশনা ও স্বাস্থ্য বিধি নিশ্চিতে কঠোর অবস্থানে সদর এসিল্যান্ড


নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাসের প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে কঠোর অবস্থান নিয়েছে ফরিদপুর জেলা প্রশাসন। ফরিদপুর সদর উপজেলার কানাইপুর বাজারে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার দায়ে ৬ জন ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে ৯২০০ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আল-আমিন এর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতে এই জরিমানা করা হয়।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার কানাইপুর বাজারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আল-আমিন এবং আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপজেলা প্রশিক্ষক আনসার রাজিবুল ইসলামের নেতৃত্বে বাজার মনিটরিং একটি চৌকস টিম শনিবার উপজেলার আওতাধীন কানাইপুর বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযান চলাকালীন সময়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে প্রশাসনের এই চৌকস টিমের সদস্য বৃন্দ জনসাধারনকে মাইকিংয়ের মাধ্যমে বুঝিয়েছেন কমপক্ষে তিন ফুট পরিমাণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্য বিধি মোতাবেক চলাচল ও ঘরের বাইরে যেকোনো কাজে মুখে মাস্ক ব্যবহার করতে অবহিত করেন।

জানা যায়, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে সীমিত পরিসরে অনেকেই দোকান ও শপিংমল খোলা রেখেছে। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠান গুলো বন্ধ করার কথা থাকলেও কিছু সংক্ষক ব্যবসায়িরা তাদের দোকানপাট খোলা রাখার অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালতে অভিযান চালিয়ে তাদের জরিমানা করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

অভিযানে উপস্থিতি ছিলেন সদর উপজেলার ভূমি অফিসের নাজির আশিকুর রহমান, ভূমি অফিসের সহকারীগন সহ আনসার সদস্যের একটি চৌকস টিম।

উপজেলা সহকারী (ভূমি) কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আল-আমিন বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী শুধু কীটনাশক ও ওষুধের দোকান ছাড়া যাবতীয় প্রতিষ্ঠান বন্ধের নির্দেশনা রয়েছে। তারপরও কিছু ব্যবসায়ী সেটি মানছে না। সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রেখেছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

এ সময় সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার দায়ে ৬ জন ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে ৯২০০ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন। বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট আরো বলেন বাইকে তিনজন ব্যক্তি চলাচল, হেলমেট বিহীন বাইক চালানো ও করোনা ভাইরাসের প্রকোপে মুখে মাস্ক না ব্যবহার করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। তাই অপরাধীদের বিরুদ্ধে এবং জনস্বার্থে উপজেলা প্রশাসনের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

কানাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফকির মোঃ বেলায়েত হোসেন জানান, কানাইপুর বাজার অনেকাংশেই স্থিতিশীল। কিছু সংখ্যক দোকানি করোনা পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে সরকারি আদেশ অমান্য করেও দোকান খোলা রেখে ব্যবসা করার চেষ্টা করছে। কিন্তু ফরিদপুরের জনবান্ধব জেলা প্রশাসকের কঠোর অবস্থান ও নিয়মিত নজরদারিতে বাজার এখন একেবারেই স্থিতিশীল হবে বলে আশাবাদী।

তিনি আরো বলেন, করোনার বিধি-নিষেধ অমান্য করে যেসব ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান খোলা রাখবে, তাদের বিরুদ্ধে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *