ফরিদপুর সদর উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো বাল্য বিবাহ


নিজস্ব প্রতিবেদক:
ফরিদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজার নির্দেশনা অনুযায়ী ৬ জুন ২০২১ রোজ রবিবার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আল-আমিন এর হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহের মত এক অভিশাপ থেকে রক্ষা পেল ১৬ বছর বয়সী এক স্কুল শিক্ষার্থী।

রবিবার বিকাল ৩ টার দিকে ফরিদপুর সদর উপজেলাধীন কানাইপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের মোছা: সুমাইয়া আক্তারের বাল্য বিবাহের আয়োজন করে তার পিতা সাজেদ মোল্লা, খবর পেয়ে সেই বাড়িতে হাজির হন সদর এসিল্যান্ড ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আল-আমিন ও ভ্রাম্যমান আদালতের একটি বিশেষ টিম, প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে বর রেখে পালিয়ে যায় বরযাত্রীরা।

প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপে বন্ধ হয় এই মেয়েটির বাল্য বিবাহ, দেশের এই দূর্যোগ কালীন সময়ে অধিক লোকজন জমায়েত করে বাল্য বিবাহের আয়োজন করায় মেয়ের বাবাকে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন, ২০১৭ মোতাবেক জরিমানা করা হয় এবং মেয়ের ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না এই বিষয়ে উভয় পক্ষের লিখিত মুচলেকা নেওয়া হয়।

বাল্যবিবাহ রোধে প্রশাসনের কার্যক্রম অব্যাহত আছে এবং থাকবে বলে জানিয়েছেন সদর এসিল্যান্ড মুহাম্মদ আল-আমিন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *