সমবায় কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা


সূত্র : শেখ ফয়েজ আহমেদ, সভাপতি, জেলা সমবায় ইউনিয়ন ও এনায়েত হোসেন লিটন, প্রধান নির্বাহী, রিলায়েন্স কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ কর্তৃক করা মিথ্যা অভিযোগের ভিত্তিতে বিভিন্ন ফেসবুক ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল/পত্রিকায় প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদ।

উপরোক্ত বিষয় ও সূত্রের আলোকে সংশ্লিষ্ট সকলকে অবগত করার জন্য জানাচ্ছি যে, গত ২৩, ২৪ ও ২৫ মার্চ/২০২১ খ্রিঃ তারিখে শেখ ফয়েজ আহমেদের নিজস্ব ফেসবুক আইডি, নিউজস্ট্রিট২৪.কম, ফার্স্টবিডি নিউজ২৪.কম, দৈনিক আজকের সারাদেশ পত্রিকাসহ কিছু অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও আরো কিছু ফেসবুক আইডিতে আমাকে জড়িয়ে “ফরিদপুর সদর উপজেলা সমবায় অফিসার বিরাজ কুন্ডুর বিরুদ্ধে উৎকোচ গ্রহণসহ বিভিন্ন অভিযোগ” শিরোনামে যে সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে তা আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদটি সম্পুর্ন মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও উদ্যেশ্যে প্রণোদিত। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

উক্ত তারিখে উল্লেখিত ফেসবুক ও অনলাইন পত্রিকাসমূহে প্রকাশতি সংবাদে কানাইপুর ইউনিয়নে রিলায়েন্স কো-অপারটেভি ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর প্রধান নির্বাহী এনায়েত হোসেন লিটন এর নিকট হতে অভিযুক্ত বিরাজ মোহন কুন্ডু ১৭/০১/২০২১ তারিখে ২০ হাজার টাকা গ্রহণ করে এবং আরো ৩০ হাজার টাকা দাবী করে, আবার কখনো ফাইল আটকিয়ে ৫ হাজার টাকা দাবি করেন এবং আরো বিভিন্ন বিষয় অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। যা সম্পূণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

মূলতঃ কানাইপুর রিলায়েন্স কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ সমিতিটি বাংলাদেশ কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লীগ (কালব) কর্তৃক অডিট করে আমার দপ্তরে অডিট প্রতিবেদন দাখিল করে। অডিট প্রতিবেদনে কিছু অনিয়ম পাওয়া গেলে যথাযথভাবে নোটিশ করে উহা যাচাইয়ের জন্য উক্ত সমিতিতে পরিদর্শনে গেলে সমিতির নির্বাহী পরিচালক পরিচয় দেওয়া এনায়েত হোসেন লিটন দুই ঘন্টা দেরিতে অফিসে আসে এবং বাড়িতে জরুরী প্রয়োজনে যেতে হবে বলে কোন প্রকার সহযোগিতা না করে এক ঘন্টার মধ্যে কোন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য না দিয়ে অফিস হতে বেরিয়ে যায়। পরিদর্শন করতে না পারায় উক্ত সমিতির অডিট নোট নিয়ম অনুযায়ী পর্যালোচনা করে জেলা সমবায় অফিসার মহোদয়ের নিকট প্রেরণ করি।

অতপরঃ জেলা সমবায় অফিসার, ফরিদপুর মহোদয় কর্তৃক বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে তদন্ত করার জন্য তিন সদস্যকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়। উক্ত তদন্তের পত্র পেয়ে তিনি আমাকে দোষারোপ করে নিজেকে আড়াল করতে শেখ ফয়েজ আহমেদের সহিত ও কিছু কুচক্রিমহলের সহায়তায় কয়েকজন সাংবাদিককে ভুল বুঝিয়ে এমন ভিত্তিহীন অভিযোগের গল্প সাজিয়ে তার অনুসারি কিছু অনলাইন পত্রিকায় এরুপ মিথ্যা রিপোর্ট করাচ্ছে।

এ ছাড়া শেখ ফয়েজ আহমেদ তার ব্যাক্তিগত ফেসবুক আইডিতে ফরিদপুর সদর উপজেলা সমবায় অফিসার বিরাজ কুন্ডুর বরিুদ্ধে বিভিন্ন ফাঁদ সৃষ্টি করে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ শিরোনামে বিস্তারিত আসছে বলে উল্লেখ করেছেন। শেখ ফয়েজ আহমেদ বিভিন্ন সময় ভিতি প্রদর্শণ করে আমার নিকট হতে বিভিন্ন অনৈতিক বা নিয়মবহির্ভুত সুবিধাদি গ্রহণ করতে ব্যর্থ হয়ে এসকল মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন সংবাদ বিভিন্ন জায়গায় প্রচার করছে।

উক্ত প্রকাশিত সংবাদসমূহ সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত, মিথ্যা ,বানোয়াট ও ভিত্তিহিীন। উল্লেখিত ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি পরিচালনাকারী শেখ ফয়েজ আহমেদ ও অন্য অভিযোগকারী এনায়েত হোসনে লিটন একে অপরের ঘনিষ্ট সহচর তাদের প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য মিথ্যা অভিযোগের মতো এহেন কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয়েছে।

ফরিদপুর সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভি ব্যাংকে শেখ ফয়েজ আহমেদ বিগত ৩ মেয়াদ অর্থাৎ ৯ বছর পূর্ণ করেছে। আইনগতভাবে তিনি এই ৪র্থ মেয়াদে কমিটিতে আসা সমবায় আইন বহির্ভুত। নতুন যে কমিটি হয়েছে তাতে তিনি না থাকলেও বিগত ৯ বছরের কার্যক্রম বা হিসাব নিকাশ নতুন কমিটিকে বুঝিয়ে না দিয়ে নিজেই ঐ জায়গায় জবরদখল করে চেয়ারম্যানের চেয়ারে এখনো বর্তমান আছেন।

বিগত ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের অডিট করার জন্য জেলা সমবায় অফিসার, ফরিদপুর মহোদয় কর্তৃক আমাকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়। সে মোতাবেক নোটিশ করলে তিনি আমাকে দিয়ে অডিট করাবেন না বলে জানায়। এমতাবস্থায় অডিটে কোন সহযোগিতা না করায় অডিট সম্পাদন করতে না পারার বিষয় আমি উর্দ্ধত্তন কর্তপক্ষকে কিছু তথ্য দিই। উক্ত অডিট করতে না পারার পত্রের প্রেক্ষিতে যুগ্ম নিবন্ধক, বিভাগীয় সমবায় দপ্তর, ঢাকা বিভাগ, ঢাকা কর্তৃক উক্ত সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ এর সামগ্রিক কার্যক্রম তদন্ত করার জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটিকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়।

উক্ত তদন্তের পত্র পেয়ে তিনি আমাকে দোষারোপ করে নিজেকে আড়াল করতে এমন ভিত্তিহীন অভিযোগের গল্প সাজিয়ে তার অনুসারী অন্য অনলাইন পত্রিকায় এরুপ মিথ্যা রিপোর্ট করেছে। এবং আরো অভিযোগ পর্যায়ক্রমে আসছে বলে মিথ্যা ভয়ভীতি প্রদর্শণ করে যাচ্ছে।
আমি উক্ত মিথা ও বানোয়াট সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

বিরাজ মোহন কুন্ডু, সদর উপজেলা সমবায় অফিসার, ফরিদপুর।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *